গুগল এডসেন্স একাউন্ট

গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলে অনলাইনে আয় ২০২২

গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলে প্রতিমাসের ২৫ তারিখে নিয়মিত আয় করা খুবই সহজ ব্যাপার। যে সময় আপনি একটি কোম্পানীতে চাকরী করার জন্য দেবেন ঠিক সেই
পরিমাণ সময় যদি গুগল এডসেন্স একাউন্ট এর পেছনে দেন তাহলেই যথেষ্ঠ। প্রথম মাসে না হোক পাঁচ-ছয় মাস পর ঠিকই একটি চাকরির সমপরিমাণ আয় শুরু হবে।
আর এই আয় ক্রমান্বয়ে বাড়তেই থাকবে। সবচেয়ে মজার বিষয় হল প্রতি মাসের ২৫-২৬ তারিখের মধ্যেই আপনার ব্যংক একাউন্টে ডলার চলে আসবে।
সাধারণত বাংলাদেশের সরকারী কিংবা ভালো ব্যাংক গুলোতে যারা চাকরি করে তারাই ২৫ থেকে ২৭ তারিখের মধ্যে বেতনের টাকা পেয়ে থাকে।
সুতারাং নিচের গুগল এডসেন্স খোলার নিয়ম ও এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি গুলো খুব মনোযোগের সাথে পড়ুন।

গুগল এডসেন্স কি বা গুগল এডসেন্স এর কাজ কি?

অ্যাডসেন্স বা এডসেন্স এর ইংরেজি রূপ হল AdSense । এটি গুগল (Google) পরিচালিত একটি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন বা অনলাইন সেবা।
যা মূলত একটি লাভ-অংশিদারী প্রকল্প যার দ্বারা একজন ব্যক্তি তার নিজস্ব ওয়েবসাইটে গুগল এডসেন্স প্রদত্ত বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে।
আর ওয়েবসাইটের মালিক ‍যিনি গুগলের এড ব্যবহার করেন তাকে গুগলের এড এজেন্ট বলে।
এক কথায় বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা ইউটিব চ্যানেলে প্রদর্শনের জন্য গুগলকে যে টাকা দেয় সেটি আবার গুগল অন্য ব্যক্তি বা
প্রতিষ্ঠান কে প্রদর্শনের দায়িত্ব প্রদান করে। আর সেটিকেই গুগল এডসেন্স বলে।
যেমন প্রথম আলো অনলাইন পত্রিকা পড়ার সময় বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখেন যেটির উপরের ডান কোনায় মাউস ধরলে দেখা যায়
”গুগল দ্বারা বিজ্ঞাপন” সেটিই মূলত গুগল এডসেন্স এর ভালো উদাহরণ।

গুগল এডসেন্স একাউন্ট কি?

ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান গুগলের কাছ থেকে কোন ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের কোড নেওয়ার জন্য গুগল এডসেন্স একাউন্ট লগ-ইন করতে হয়।
সেটিই মূলত গুগলের এডসেন্স একাউন্ট হিসেবে বিবেচিত।মূলত এই একাউন্টের মাধ্যমেই গুগল আপনাকে টাকা দেবে।

কিভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলব?

ওয়েবসাইট বা ইউটিউব তেকে এডসেন্স একাউন্ট পাওয়া তেমন কষ্টসাধ্য নয়। ২৫-৩০টি ইউনিক কন্টেন্ট বা ৪-৫ ভিডিও আপলোড করলেই এডসেন্স একাউন্টের অনুমোদন পাওয়া যায়। এই কাজ গুলো সম্পন্ন করলে গুগল একাউন্ট খোলার জন্য আবেদন করতে হবে।এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য নিচের লেখাটি দেখতে পারেন।

বিনামূল্যে ফ্রিল্যান্সিং শিখু!!!

যারা ফ্রিতে ডিজিটাল মার্কেটিং/ফ্রি ল্যান্সিং করে প্রতি মাসে নিশ্চিত আয় করতে চান তাদের জন্যই মূলত এ কোর্সটি।
রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন Cell: 01711981051

ফেসবুক গ্রুপ:
বিনামূল্যে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে বা ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে নানা প্রশ্নের সামাধান পেতে মেম্বার হতে পারেন “ডিজিটাল মার্কেটিং হেল্পলাইন” ফেসবুক গ্রুপটিতে।
গ্রুপ লিংক https://www.facebook.com/groups/digitalhelp

আরও পড়ুন: গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার ১০ টি সহজ উপায়

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করবেন যেভাবে

শুরুতে একটি ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেল খুলুন। এর পর নিয়ম অনুযায়ি কনটেন্ট দিন। তারপর এপ্লাইকরুন। অতপর ১০০ ডলার হলে ব্যাংক একাউন্ট
দিয়ে মাসের ২৫-৩০ তারিখের মধ্যেই টাকা উত্তলন করুন। এই হল গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় বা এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি

গুগল এডসেন্স এর নিয়ম বা টিপস

অবশ্যই যে কন্টেন্ট দেবেন তা ইউনিক হতে হবে। অর্থাৎ কপি কার চলবে না। ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলের প্রতিদন ভিজিটর
কমপক্ষে ৩০ জন হতে হবে। ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে ভালো মানের থিম হতে হবে। ওর্য়াডপ্রেস প্রিমিয়াম থিম হলে ভালো হয়।
ইউনিক ছবি ও পরিস্কার কন্টেন্ট হতে হবে। কোন এডাল্ড কন্টেন্ট গ্রহন যোগ্য নয়। প্রতিনিয়ত এনালাইটিকস দেখে আপডেড করতে হবে।
ওয়েব সাইটের ক্ষেত্রে About us, Contact us এবং Terms & condition পেইজ গুলো থাকা জরুরী।
সেই সাথে গুগল এর নোটিশ গুলো খেয়াল করতে হবে।

গুগল এডসেন্স ওয়েবসাইট

ওয়েব সাইট থেকে প্রাপ্ত এডসেন্স একাউন্ট কে বলা হয় নন হোস্টেট একাউন্ট বা ওয়েবসাইট ভিত্তিক একাউন্ট। গুগল এডসেন্স (Google AdSense) একাউন্ট পাওয়ার পর রক্ষা করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। পরিচালনার নিয়ম গুলো জানা থাকলে খুব সহজেই আপনি সারা জীবন আয় করতে পারবেন।

গুগল এডসেন্স ইউটিউব

ইউটিউব থেকে প্রাপ্ত এডসেন্স একাউন্ট কে বলা হয় হোস্টেড একাউন্ট। কারণ এই একাউন্ট ইউটিউবের সাথে সংযুক্ত থাকে।
হোস্টেড একাউন্টের লভ্যাংশের কিছু অংশ ইউটিউব নিয়ে বাকিটা এড এজেন্ট কে দিয়ে দেয়। এই একাউন্ট পাওয়া ওয়েবসাইটের চেয়ে সহজ।

গুগল এডসেন্স ব্যাংক একাউন্ট করবেন কোথায়?

ইসলামী ব্যংক বাংলাদেশ লিমিটেড, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইবিএল, সিটি ব্যাংক, এসআইবিএল থেকে টাকা তুলুন।
এছাড়াও বাংলাদেশ ও ইন্ডিয়ার অনেক ব্যাংক থেকে টাকা উত্তলন করা যায়। সে ক্ষেত্রে ব্যাংক গুলোর সাথে যোগাযোগ করলেই হবে।
শুধু বলতে হবে, আপনার ব্যাংকে ওয়্যার ট্রান্সফার করা যায়? যা আমি গুগল এডসেন্স ব্যাংক একাউন্ট হিসেবে ব্যবহার করব।
অর্থাৎ গুগল থেকে পাঠানো ডলার উত্তলন করব।

গুগল এডসেন্স থেকে আয় করতে সাবধানতা জরুরী

ভুলেও নিজের সাইটে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবে না। পারতপক্ষে সাইটের লিংক অন্যকে দেবেন না কারণ সে ফেক ক্লিক করতে পারে।
গুগল ফেইক ক্লিক ট্রেস করতে পারে এবং সেটি পছন্দ করে না। একটি পিসি থেকে দুইটি এডসেন্স একাউন্ট না খোলাই উত্তম।
একাউন্টে অন্য কারো কম্পিউটারে লগ-ইন করা যাবে না।
কারণ তাতে বারে বারে আইপি পরিবর্তন হবে ফলে একাউন্ট ব্যান হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

গুগল এডসেন্স এর বিকল্প

অনেকেই প্রশ্ন করে গুগল এডসেন্স এর বিকল্প আছে কি না? অবশ্যই আছে। যেমন ফেসবুক এড মনিটাইজেশন ইত্যাদি। তবে গুগল এডসেন্স উত্তম।
কারণ গুগল এডসেন্স ইনকাম করা সামাজিক ও অর্থনৈতিক ভাবে ভালো। এর স্থায়ীত্ব নিয়ে চিন্তা করার কারণ নেই।


আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং সার্ভিস নিতে ও ফ্রি কনসালটেশন নিতে নিচে যোগাযোগ করুন
আরও জানতে ভিজিট করুন: ফেসবুক গ্রুপ ।। ইউটিউব চ্যানেল।। যোগাযোগ
মোবাইল+হোয়াটসঅ্যাপ: 01711981051 (সকাল ১০ – রাত ৯ টার মধ্যে কল করুন)

লেখাটিতে উপকার পেয়েছেন? আবার পড়তে চান? তাহলে শেয়ার করুন।

1 thought on “গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলে অনলাইনে আয় ২০২২”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *