রোমানিয়া কাজের ভিসা

রোমানিয়া কাজের ভিসা: ভিসার মূল্যসহ সর্বশেষ ভিসা তথ্য

রোমানিয়া কাজের ভিসা পাওয়া বর্তমানে বাংলাদেশীদের জন্য স্বপ্নের মত। কারণ ইউরোপের এ দেশটি খুব শিঘ্রই সেনজেনভুক্ত হতে চলেছে। এবং রোমানিয়া থেকে অন্যান্য সেনজেনভুক্ত দেশে যাওয়া খুব সহজ। সাধারণত আমরা যে প্রশ্নগুলো বেশি পাই তা হল,
কি কি ক্যাটাগরি তে কর্মী নিবে। কি কি ডকুমেন্টস লাগবে। কত বেতন পাবেন। কাজ কত ঘন্টা করতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা ভিসার মেয়াদ কত বছর। সপ্তাহে ছুটি কয়দিন। ওয়ার্ক পারমিট হতে কতদিন সময় লাগবে। নিচে রোমানিয়ার ভিসা সম্পর্কে সকল তথ্য তুলে ধরছি। আশা করি আপনাদের কাজে লাগবে।

ভিসার খরচ কত?

৮ লাখ থেকে ৯লাখ টাকা মোট খরচ পড়তে পারে। এটি শুধুমাত্র একটি ধারণা দেওয়া হল। এর চেয়ে কম বা বেশিও হতে পারে।
কারণ এটা কাস্টমারের সাথে চুক্তির ধরণ অনুযায়ী ও অন্যান্য খরচের উপর ভিত্তি করে সময় সময় পরিবর্তন হয়।
এর মধ্যে থাকছে, ওয়ার্ক পার্মিট, ভিসা, ম্যানপাওয়ার ও এয়ার টিকেট। কাস্টমারকে ইন্ডিয়া যেতে হবে না।

বিঃদ্রঃ আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে যে কোন প্রশ্ন করতে পারেন এখানে https://web.facebook.com/groups/WorkVisaHelpline

সময় কত দিন লাগবে?

রোমানিয়ার জব ভিসা পেতে সর্বসাকুল্যে ৩ মাস থেকে ৪ মাস লাগতে পারে।

ভিসা অনলাইনে চেক করা যাবে?

হাঁ, আপনি চাইলে আপনার পার্মিট টি রোমানিয়া সরকারের নির্ধারিত ওয়েবসাইট থেকে ভিসার পারমিট টি চেক করে নিতে পারবেন।

আরও পড়ুন: বর্তমানে যে সকল দেশের জব ভিসা পাওয়া যায়

টাকা কি আগে না ভিসার পরে দেবেন?

দুরকম সিস্টাম আছে। একটি হল যখন যে পরিমাণ টাকা লাগবে সেটি সময় সময় দেওয়া। অন্যটি হচ্ছে, কন্টাক বেসিস।
এ পদ্ধতিতে টাকা ভিসা হাতে পাওয়ার পর দিতে হবে। এক্ষেত্রে খরচ একটিু বেশি পড়ে।

বয়স কত লাগে?

রোমানিয়ায় সাধারণত ২২ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে বয়স হলে জব ভিসার আবেদন করা যায়। তবে অনেক ক্ষেত্রে কিছু কম হলেও চলে।

কাজের ধরন, যোগ্যতা ও বেতন কেমন?

পদের নামকনস্ট্রাশন ওয়ার্কার বা রিলেটেড ওয়ার্ক
শিক্ষাগত যোগ্যতাএসএসসি
বেতন৪০০ থেকে ৬০০ ইউএস ডলার
খাবারদুপরের খাবার কোম্পানি দেবে
কাজের সময়৮ ঘন্টা/দিনে
সুবিধা সমূহফ্রি বাসস্থান, পরিবহন ও চিকিৎসা
রোমানিয়া কাজের ভিসা বিজ্ঞপ্তি নং -১

বিদেশে রন্ধনশিল্পীদের প্রচুর চাহিদা কেন?

বিদেশে রন্ধনশিল্পীদের কাজের অপার সম্ভবনা রয়েছে। অর্থাৎ যারা বিভিন্ন হোটেল ও রিসোর্টে খাবার রান্না করে তাদের চাকরির সুযোগ বেশি।এ পেশার লোককে শেফ বলা হয়।
মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলোতে এমন কি মালদ্বীপ, মালয়শিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরের মতো উন্নত দেশে একজন প্রফেশনাল শেফের মাসিক বেতন বাংলাদেশী টাকায় কমপক্ষে ষাট থেকে সত্তর হাজার টাকা।
এ পেশার লোকদের ওয়ার্ক পারমিট এবং ভিসা সংক্রান্ত জটিলতাও অনেকাংশে কমে হয়। তবে যারা রন্ধন শিল্পটাকে ভালোবাসে তাদের জন্য এটা খুব ভালো।
এ পেশায় জব ভিসা নিতে চাইলে আগে পুষ্টিকর ভালো ভালো রান্নার রেসিপি জানতে হবে। রেসিপি সম্পর্কে আরও জানুন এখানে https://foodlinkbd.com

আরও পড়ুন: ‍


বিদেশে কাজের ভিসা বিষয়ে প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। সেবারু ডটকম (shebaru.com) থেকে খুব দ্রুত উত্তর দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ।
দরকারী লিংক: কাজের ভিসা বিষয়ক ট্রেনিং।। ওয়ার্ক ভিসা ফেসবুক গ্রুপ।। জব ভিসা বিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল।। ভিসার জন্য যোগাযোগ
বি:দ্র: লেখাটি সর্বশেষ আপডেট করা হয়েছে: ১৫আগস্ট ২০২১

14 thoughts on “রোমানিয়া কাজের ভিসা: ভিসার মূল্যসহ সর্বশেষ ভিসা তথ্য”

      1. Md Anowar Hossain

        আমার তো IELTS নেই তাহলে আমি কি কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যেতে পারবো…?

      1. আমি রোমানিয়া যেতে চাই ,মাধ্যম খুজছি আমাকে সাহায্য করবেন, রোমানিয় কার মাধ্যমে ,কিভাবে যাবো,আমার মোবাইল 01999888484 , ও ইমেইল maact3@gmail.com

  1. ভাই রোমানিয়াতে কি Cleaner এর পোস্ট আছে,,,মানে Work permit visa এর কাজ হচ্ছে Cleaner,,, এক্টু জানাবেন?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *